হলদেপেট ফুটকি | Yellow-bellied Warbler | Abroscopus superciliaris

808
হলদেপেট ফুটকি | ছবি: ইন্টারনেট

প্রাকৃতিক আবাসস্থল চিরহরিৎ বনের বেড়ে ওঠা গাছপালা, পাহাড়ের পাদদেশ ও বাঁশবন। চড়–ই আকৃতি পাখি। দেখতে চমৎকার। নজরকাড়া রূপ। বিচরণ করে একাকী কিংবা জোড়ায়ও। অস্থিরমতি পাখি। স্বভাবে চঞ্চল। প্রজাতির বৈশ্বিক বিস্তৃতি বাংলাদেশ, ভারত, মিয়ানমার, চীন, লাওস, থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম, ব্রুনাই, মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়া। বিশ্বে এদের অবস্থান সন্তোষজনক হলেও দেশে যত্রতত্র দেখা যায় না।।

পাখির বাংলা নাম: ‘হলদেপেট ফুটকি’, ইংরেজি নাম: ‘ইয়লো-বেলিড ওয়ার্বলার (Yellow-bellied Warbler), বৈজ্ঞানিক নাম: Abroscopus superciliaris| এরা ‘হলুদপেট বিশিষ্ট পাতা ফুটকি’ নামেও পরিচিত।

গড় দৈর্ঘ্য ৯ সেন্টিমিটার। ওজন ৬-৭ গ্রাম। স্ত্রী-পুরুষ পাখি দেখতে একই রকম। তুলনামূলক পুরুষ সামান্য লম্বা। মাথা ধূসর। ঘাড়, পিঠ ও লেজ হলদে জলপাই। নীলাভ ধূসর। পিঠের মাঝ বরাবর নীলাভ ধূসর। দু’পাশ জলপাই সবুজ। ডানার প্রান্ত পালক গাঢ় বাদামি। ডানার মাঝখানে হলটেদে চওড়া দাগ। লেজ হলুদাভ সবুজ। থুতনি ও গলা ধূসর সাদা। বুকের নিচ থেকে ক্রমশ হলদে হয়ে লেজতলে মিলেছে। চোখের ওপরে চওয়া সাদা টান। চোখের মনি বাদামি। ঠোঁট কালচে বাদামি। পা হলদে। অপ্রাপ্তবয়স্কদের রঙ ভিন্ন।

প্রধান খাবার: ছোট মাকড়সা, মশা, ছোট পোকামাকড়। প্রজনন মৌসুম এপ্রিল থেকে জুন। অঞ্চলভেদে ভিন্ন। বাসা বাঁধে শুকনো ঘাস দিয়ে পেঁচিয়ে কাপ আকৃতির বাসা বানায়। ডিম পাড়ে ৪-৫টি। ডিম ফুটতে সময় লাগে ১২-১৪ দিন।

লেখক: আলম শাইন। কথাসাহিত্যিক, কলামলেখক, বন্যপ্রাণী বিশারদ ও পরিবেশবিদ।
সূত্র: দৈনিক মানবকণ্ঠ, 23/02/2018

মন্তব্য করুন:

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.